ফাঁসিতে ঝুলে মুক্তি চাইলেন ‘‘ বাংলাদেশী আইডল ’’ সঙ্গীত শিল্পী পঙ্কজ

আত্মহত্যা করেছেন বাংলাদেশী আইডল খ্যাত সঙ্গীত শিল্পী পঙ্কজ দেবনাথ (২৮)। বুধবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে বান্দরবান শহরের নিজ বাসার ছাদের বিমে ফাঁসির দড়িতে ঝুলে তিনি অাত্মহত্যা করেন। পঙ্কজের বন্ধু ছাত্রলীগ নেতা আশিষ বড়ুয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অনুসন্ধানে যায়, আত্মহত্যার কিছুক্ষণ অাগে পঙ্কজ একটি ভিডিও প্রকাশ করে ফেসবুকে। ভিডিওতে তিনি বলেন ‘‘ বাই ভালো থাকিস, বেঁচে থেকেতো মুক্তি দিতে পারবো না, এভাবেই মুক্তি পেতে চাই। ’’

রাতেই পঙ্কজকে আনা হয় সদর হাসপাতালে।

ভিডিওটি তিনি তার কয়েকজন বন্ধুকে ম্যাসেন্জারে পাঠালে তারা দ্রুত বালাঘাটাস্থ পঙ্কজের বাসায় গিয়ে শোয়ার কক্ষের দরজা ভেঙ্গে পঙ্কজকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। পরে তারা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে এলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

মাত্র ১৭ সেকেন্ডের ভিডিওতে বেশ উৎফুল্ল দেখাচ্ছিল খালি গায়ে থাকা পঙ্কজকে। তার মাথার ওপর একটি দড়ি ঝুলে থাকতেও দেখা গেছে ভিডিওতে।

প্রেমঘটিত কারণে অভিমান করে পঙ্কজ এমন পরিণতি বরণ করেছেন বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তাঁর কয়েকজন ঘনিষ্ট বন্ধু।

বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল এস এ টিভির বাংলাদেশী আইডল ছিলেন বান্দরবানের পঙ্কজ দেবনাথ। অল্প সময়ে দেশের সঙ্গীতাঙ্গনে বেশ সুনাম কুড়িয়েছিলেন এই গুনী তরুণ শিল্পী।

এদিকে পঙ্কজের এই অকাল মৃত্যুকে মেনে নিতে পারছেন না, স্থানীয়রা। রাতে খবর শুনে অনেকেই ভিড় করেছেন হাসপাতালে।

আপনার মন্তব্য কী?